সর্বশেষ সংবাদ

জ্বালানি খাতের উন্নয়নে আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধি অপরিহার্য: জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৮:০২ পিএম, জুন ৩০, ২০২০
  • শেয়ার করুন

বৈশ্বিক জ্বালানি খাতের টেকসই উন্নয়ন দ্রুত করতে আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধি অপরিহার্য বলে মন্তব্য করেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) নিজ বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন, এফজেডই, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বেক্সিমকো এলপিজি, বাংলাদেশ- এর হোল্ডিং কোম্পানি, আরআর হোল্ডিং লিমিটেড, রাস আল খাইমাহ, সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে যৌথ বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, জ্বালানি বাজারের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, বিকল্প প্রযুক্তির সহজলভ্যতা, আধুনিক প্রযুক্তির অবাধ হস্তান্তর আগামী দিনের জ্বালানি সংকট নিরসনে কার্যকর অবদান রাখবে। আঞ্চলিক বা উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতা জ্বালানি বাণিজ্যের অসামঞ্জস্যতা দূর করে বাণিজ্যের পরিবেশ উন্নত করবে। তাই সহযোগিতা আরও বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের আওতায় জ্বালানি খাতের সহযোগিতায় এই চুক্তি অন্যতম পথিকৃৎ। জ্বালানির চাহিদা ও সংস্থানের মধ্যে সমন্বয় করে জ্বালানি বাজার উন্নয়নে আজকের চুক্তিটি অবদান রাখতে পারবে।

‘বাংলাদেশেও এলপিজির চাহিদা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০৪১ সাল নাগাদ এলপিজির প্রক্ষেপিত চাহিদা প্রায় ৮০ লাখ টন।’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, যৌথ বিনিয়োগ চুক্তিটি বাংলাদেশ ও ভারতের উত্তরাঞ্চলের রাষ্ট্রগুলোতে পাইপলাইন নির্মাণের মাধ্যমে এলপিজি রফতানি, লুব্রিক্যান্টস, পেট্রোক্যামিক্যাল ও এলএনজি ব্যবসার বৈচিত্র্যময়তা এবং বহুমুখিতা সৃজন ও প্রযুক্তি হস্তান্তর এবং বাংলাদেশে গবেষণা ও উন্নয়ন সুবিধা স্থাপনের মাধ্যমে টেকসই জ্বালানি ব্যবস্থার উন্নয়নে অবদান রেখে হাইড্রোকার্বন খাতের বাইরেও ব্যবসা-বাণিজ্যের আওতা অন্বেষণ করবে।

চুক্তিটিতে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান সঞ্জিব সিং ও আরআর হোল্ডিং লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক তারিক আলম ভার্চুয়ালি স্বাক্ষর করেন।

ভার্চুয়াল এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে ভারতের পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস এবং স্টিল বিষয়ক মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আনিছুর রহমান এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস উপস্থিত ছিলেন।