মহান আল্লাহ মুজিব ভাইকে মানুষের সেবা করার জন্য দুনিয়াতে পাঠিয়েছে

প্রকাশিত: ৮:৫৫ পিএম, জুন ৯, ২০১৯
  • শেয়ার করুন

মুজিবুল হক মুজিব হলেন একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ ও সংসদ সদস্য। তিনি কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম) থেকে তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য [১] এবং বর্তমান রেলপথ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে মুজিব বাহিনীর সদস্য হিসাবে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন।

তিনি ছিলেন মন্ত্রী কিন্তু এখন নেই মন্ত্রীত্ব, তবুও তিনি এলাকায় এলেই মানুষের ঢল নামে। সাধারণ মানুষের আবেগ-উচ্ছ্বাস, ভালোবাসা যেন নিংড়ে পড়ে তাঁকে ঘিরে। কেউ পায়ে ধরে সালাম করছেন, কেউ কোলাকুলি করছেন, প্রবীনদের অনেকে তাঁকে জড়িয়ে ধরছেন।

এই দৃশ্য-ঈদুল ফিতরের পরের দিন ৬ জুন দুপুরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের শ্রীপুর ইউনিয়নের বসুয়ারা গ্রামের। সাবেক এই মন্ত্রী বাড়িতে এসেছেন বলে এমন দৃশ্য তা নয়। এটি নিত্য দিনেরই দৃশ্য।

এদিকে ৭ জুন যখন চৌদ্দগ্রামের আরেক প্রান্ত কনকাপৈতের জঙ্গলপুর বামপাড়া গ্রামে যান তখনও একই দৃশ্য দেখা যায়। তিনি যেখান দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন সেখানে তাঁর পিছন পিছন হাজারো মানুষের ভিড়। কেউ সেলফি তুলছে কেউ শ্লোগান দিচ্ছে। আবার গ্রামের অনেক মানুষ ঘিরে ধরছে তাঁকে।

এছাড়া গত ৬ জুন সাবেক এই মন্ত্রীর নিজ বাড়ি বসুয়ারায় সরেজমিনে গেলে এসব দৃশ্য দেখা যায়। ঈদের পরের দিন তিনি আসেন নিজ গ্রামের মানুষের কাছে। এ জন্য নিজ বাড়িতে আয়োজন করা হয় দুপুরের খাবারের। কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেন সেই ভোজে। কুমিল্লা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এই মুজিবুল হকের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করতে কুমিল্লা থেকেও যান অনেক নেতাকর্মী।

দুপুরের স্বপরিবারে বসুয়ারায় পৌঁছে বসুয়ারা মসজিদে দোয়া মাহফিলে অংশ নেন তিনি। সেখানে মুসুল্লিদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। পরে যান পাশেই অবস্থিত নিজ বাড়িতে। সেখানে সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া দুপুরের খাবারে অংশ নেয়া গ্রামবাসীর সাথে কথা বলেন।

পরদিন ৭ জুন মুজিবুল হক মুজিব যান চৌদ্দগ্রামের কনকাপৈত ইউনিয়নের জঙ্গলপুর বামপাড়া ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায়। সেখানে গেলে তাঁকে ঘিরে ধরেন কয়েক শত সাধারণ মানুষ। ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন তারা। তিনি যখন গ্রামের রাস্তা দিয়ে হেঁটে যান তখন পেছন পেছন সাধারণ মানুষ তার সাথে হাঁটা শুরু করেন।

এ দিন সন্ধ্যায় শুভপুর ইউনিয়নের করইয়া বাজারে গেলে সেখানেও হাজারো মানুষের ভিড় পরিলক্ষিত হয়। সকলে প্রিয় নেতাকে পেয়ে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

রেজা আহমেদ শুভ নামে একজন ফেসবুকে এ দৃশ্য দেখে মন্তব্যে লিখেছেন- তাঁর মতো সহজ, সরল নেতার সাথে যে কারো দেখা করার ইচ্ছা হবে। আমারও একবার দেখা করার খুব ইচ্ছা করছে।

স্থানীয় মোস্তফা ভূইয়া জানান, আমার মনে হয়, মহান আল্লাহ মুজিব ভাইকে মানুষের সেবা করার জন্য দুনিয়াতে পাঠিয়েছে। জানা গেছে, ররিবার তিনি ভাটরা এলাকায় মানুষের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে যোগ দিতে সোমবার তাঁর ঢাকায় যাওয়ার কথা রয়েছে।



সর্বশেষ খবর