স্লোভেনিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের

প্রকাশিত: ৮:০৩ পিএম, জুন ২৩, ২০২০
  • শেয়ার করুন

স্লোভেনিয়ার প্রেসিডেন্ট বরুত পাহোরের সাথে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন অস্ট্রিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবু জাফর।

গত ১৭ জুন স্লোভেনিয়ার রাজধানী লুবলিয়ানাতে পাহোরের কার্যালয়ে এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠান হয়। এর আগে ১৬ জুন স্লোভেনিয়ার ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির স্পিকার ইগোর জেরোচিচের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন রাষ্ট্রদূত আবু জাফর।

স্লোভেনিয়ায় বাংলাদেশ সরকারের কোনো দূতাবাস নেই, তাই অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনাতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসই স্লোভেনিয়াতে থাকা বাংলাদেশিদের যাবতীয় রাষ্ট্রীয় সহায়তা করে থাকে। ভিয়েনায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতই স্লোভেনিয়ায় বাড়তি দায়িত্ব পালন করেন।

প্রেসিডেন্ট পাহোরের সঙ্গে সাক্ষাতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষ থেকে তাকে আন্তরিকভাবে অভিন্দন ও ধন্যবাদ জানান আবু জাফর। দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর রাষ্ট্রদূত হিসেবে কর্মরত থাকাকালে বিভিন্ন সময়ে স্লোভেনিয়ার সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতার জন্যও তিনি পাহোরের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

প্রেসিডেন্ট পাহোর এ সময় বাংলাদেশের সাথে স্লোভেনিয়ার দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কের কথা তুলে ধরেন এবং ভবিষ্যতে এ সম্পর্ককে আরও বেগবান করার জন্য আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বিশেষত বাংলাদেশের সাথে স্লোভেনিয়ার কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করার লক্ষ্যে আবু জাফরের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন এবং তাকে স্লোভেনিয়ার সরকারের পক্ষ থেকে ‘লিটল বার্ড অব গ্র্যাটিটিউট’ উপাধিতে ভূষিত করেন।

এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক ও অর্থনৈতিকসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন প্রেসিডেন্ট পাহোর।

রাষ্ট্রদূত আবু জাফর স্লোভেনিয়ার প্রেসিডেন্টের কাছে রোহিঙ্গা সমস্যার বর্তমান চিত্র তুলে ধরেন এবং এ সমস্যা সমাধানে, বিশেষত অনতিবিলম্বে যেন রোহিঙ্গাদের নিজ মাতৃভূমি মিয়ানমারে স্থায়ী প্রত্যাবাসনের ব্যবস্থা করা যায়, সেজন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে স্লোভেনিয়ার সহযোগিতা কামনা করেন। পাহোর রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানসহ তাদের স্বদেশে প্রত্যাবাসনের লক্ষ্যে স্লোভেনিয়া সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে সর্বোতভাবে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

আশা করা হচ্ছে, আগামী ২০২১ সালের দ্বিতীয় ভাগে স্লোভেনিয়া ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে সভাপতিত্বের ভূমিকা পালন করবে।

এছাড়া স্লোভেনিয়ার বিভিন্ন অর্থনৈতিক প্রকল্পে বাংলাদেশ থেকে জনশক্তি রফতানির বিষয়েও আবু জাফরের সাথে পাহোরের আলোচনা হয়।

এর আগে স্লোভেনিয়ার স্পিকার ইগোর জেরোচিচের সঙ্গে সাক্ষাতে তাকে বাংলাদেশ সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর পক্ষ থেকে উষ্ণ অভিনন্দন জানান রাষ্ট্রদূত আবু জাফর।

তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করতে চলেছেন। স্লোভেনিয়ার প্রেসিডেন্ট এবং স্পিকার উভয়েই তার পরবর্তী কার্যভারের জন্য সাফল্য কামনা করেন।

ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে বাংলাদেশের বর্তমান রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আব্দুল মুহিত অস্ট্রিয়ায় পরবর্তী রাষ্ট্রদূত হিসেবে স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন।



সর্বশেষ খবর