ব্রিটেনের ৫৭তম প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ঋষি সুনাক

প্রকাশিত: ৩:৩১ পিএম, অক্টোবর ২৫, ২০২২
  • শেয়ার করুন

প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত হিসাবে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিচ্ছেন দেশটির কনজারভেটিভ পার্টির নেতা ঋষি সুনাক। গত দুই শতাব্দীর মধ্যে যুক্তরাজ্যের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আজ দায়িত্ব নেবেন তিনি।

তবে তার এই নতুন দায়িত্ব মোটেও সুখকর নয়, বরং চ্যালেঞ্জিং। কারণ অর্থনৈতিক আর রাজনৈতিক সংকটে দেশটিতে যখন টালমাটাল অবস্থা বিরাজ করছে, তখন সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দায়িত্বভার গ্রহণ করতে চলেছেন তিনি।

তিনি উত্তরাধিকারসূত্রে এমন এক অর্থনীতির দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন যা মন্দার দিকে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। ঋষির পূর্বসূরি লিজ ট্রাসের শুল্ক হ্রাসের বাজেট ব্রিটেনের অর্থনীতিতে তীব্র ধাক্কা বয়ে এনেছে, বিপর্যস্ত করেছে পাউন্ড।

দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে নাম প্রত্যাহার ও প্রতিদ্বন্দ্বী পেনি মর্ডান্ট টোরি এমপিদের কাছ থেকে যথেষ্ট সমর্থন পেতে ব্যর্থ হওয়ায় সোমবার ব্রিটেনের কনজারভেটিভ পার্টির নেতা হন ঋষি।

ঋষি সুনাক মঙ্গলবার আরও পরের দিকে ব্রিটেনের রাজা চার্লসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর ব্রিটেনের রাজতন্ত্রের মসনদে বসা চার্লস ক্ষমতায় আসার পর প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ঋষিকে নিয়োগ দেবেন। গত ৮ সেপ্টেম্বর মারা যাওয়ার মাত্র দু’দিন আগে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ট্রাসকে নিযুক্ত করেছিলেন।

ব্রিটেনের রাজনীতির ইতিহাসে সবচেয়ে ক্ষণস্থায়ী প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন ট্রাস। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ৩৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া ৩টা) ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বিদায়ী ভাষণ দেবেন লিজ ট্রাস। তার আগে মন্ত্রিসভার সদস্যদের সাথে বিদায়ী বৈঠক করবেন তিনি।

এর এক ঘণ্টা পর ১০ ডাউনিং স্ট্রিটের বাইরে ভাষণ দেবেন ঋষি সুনাক। এর আগে, সোমবার বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় কনজারভেটিভ পার্টির নেতা নির্বাচিত হওয়ার পর এক ভাষণে ব্রিটেনে ‌‘স্থিতিশীলতা আর ঐক্যের’ ডাক দিয়েছেন দেশটির নতুন এই প্রধানমন্ত্রী।

১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটের সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে প্রথম বক্তৃতা দেওয়ার পর সুনাকের প্রথম কাজ হবে তার মন্ত্রিসভা গঠন। তবে ঋষি সুনাকের মন্ত্রিসভায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ বরিস জনসনের মন্ত্রিসভা থেকে অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক পদত্যাগ করায় কার্যত প্রধানমন্ত্রিত্ব হারাতে হয় তাকে।

ব্রিটেনের রাজনীতিতে গত কয়েক বছর ধরেই আলোচনায় আছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ঋষি সুনাক। ভারতীয় বহুজাতিক তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানি ইনফোসিসের সহপ্রতিষ্ঠাতা নারায়ণ মূর্তির জামাতা সুনাককে ঘিরে বিতর্কও হয়েছে বিস্তর।

কনজারভেটিভ এই নেতা পূর্ব আফ্রিকা থেকে ব্রিটেনে পাড়ি জমানো ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের এক পরিবারের সন্তান। অভিবাসী পরিবারের সেই ঋষি ব্রিটেনের ৫৭তম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন।



সর্বশেষ খবর