প্রধানমন্ত্রীর আগমনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয়ে যশোর

প্রকাশিত: ১০:৩৫ এএম, নভেম্বর ২৪, ২০২২
  • শেয়ার করুন

আজ বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) যশোরের শামস্-উল হুদা স্টেডিয়ামে বিশাল জনসভায় ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা। ঐতিহাসিক এই ভেন্যুসহ পুরো শহর সমাবেশস্থলে পরিণত করতে গত ৭ দিন ধরে ব্যস্ত সময় পার করছেন দলটির নেতারা।

তারা বলছেন, এই জনসভায় স্মরণকালের জনসমাগম ঘটবে। শেখ হাসিনার আগমনকে কেন্দ্র করে উৎসাহ-উদ্দীপনা এখন যশোরজুড়ে।

উৎসবের আমেজ যশোরের প্রতিটি প্রান্তে। পাঁচ বছর পর আসছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। করোনা মহামারির পর এবং দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে প্রথম জনসভায় ভাষণ দেবেন তিনি। এজন্য চলছে প্রস্তুতিমূলক কর্মযজ্ঞ। এখন বঙ্গবন্ধু কন্যার অপেক্ষায় যশোরবাসী।

প্রধানমন্ত্রীর আগমনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা জালে ঢাকা পড়েছে যশোর। সভামঞ্চ ঘিরে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানো হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স (এসএসএফ) স্টেডিয়াম নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। আর নিরাপত্তার প্রয়োজনে এসএসএফের দেওয়া ছক অনুযায়ী সাজানো হয়েছে যশোরকে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যের উপস্থিতিতে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি হচ্ছে। এ বলয়ে যুক্ত করতে আশপাশের জেলা থেকেও আনা হচ্ছে র্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র্যাব) ও পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের সদস্য। সংস্কার শেষে নতুন সাজে সাজানো হয়েছে স্টেডিয়াম।

জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে—জনসভা সফল করতে তিন ক্যাটাগরিতে থাকবে নিরাপত্তা বাহিনী। এই তিনটির মধ্যে সাদা পোশাকে থাকবেন যারা তারা চারিদিকে নজরদারির মাধ্যমে অপরাধীদের সনাক্ত করবেন। পোশাকে সার্বক্ষণিক নজরদারি করবে আর একটি গ্রুপ। রাস্তায় থাকবে থাকবে ট্রাফিক পুলিশ। এছাড়াও রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) ও আমর্ড পুলিশ ব্যটালিয়ন (এপিবিএন) থাকবে টহলে।

এছাড়া র্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র্যাব) থাকবে মঞ্চের আশপাশে নিরাপত্তার দায়িত্বে।



সর্বশেষ খবর